বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩:১৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
প্রত্যেক পুলিশ সদস্যের জন্য বছরে একবার প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়েছে —– আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে​ গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে দুই কিশোরের মৃত্যু লালমনিরহাটে ইন্ট্রাকো সোলার পাওয়ার লিমিটেড কোম্পানী তিস্তার দূর্গম চরাঞ্চলে সৌর বিদ্যুৎ উৎপাদন উপকৃত হবে​ শৈলমারী চরের অবহেলিত ২০ হাজার পরিবার লালমনিরহাট জেলা পুলিশ কতৃক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৬তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত লালমনিরহাটে যথাযোগ্য মর্যাদায় ৪৬তম জাতীয় শোক দিবস পালিত লালমনিরহাটে যথাযোগ্য মর্যাদায় ৪৬তম জাতীয় শোক দিবস পালিত লালমনির কন্ঠ পত্রিকার সম্পাদকের সহধর্মিণী শিক্ষিকা আন্জুমান আরা বেগমের মৃত্যুতে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হাতীবান্ধায় বিয়ের ১৫দিন পর শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে এসে পুকুরে গোসল করতে নেমে নতুন জামাইয়ের মৃত্যু লালমনিরহাটে মোটর সাইকেল চালানো শিখতে গিয়ে নবম শ্রেণি এক ছাত্রের মৃত্যু আসন্ন বর্ষা মৌসুমকে সামনে রেখে লালমনিরহাট পৌরসভার ড্রেনেজ ব্যবস্থা ঢেলে সাজানোর কাজ চলছে

অবশেষে​​ করোনা​ ভাইরাস টিকার জন্য নিবন্ধন জীবিত স্কুল শিক্ষককে মৃত দেখিয়ে বন্ধ হওয়া এনআইডি​ সচল

লালমনির কন্ঠ রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময়: শুক্রবার, ৫ মার্চ, ২০২১
  • ১০৮ বার দেখা হয়েছে

অবশেষে​​ করোনা​ ভাইরাস টিকার জন্য নিবন্ধন,

জীবিত স্কুল শিক্ষককে মৃত দেখিয়ে বন্ধ হওয়া এনআইডি​ সচল

জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না।।​ ৬ বছর আগে​​ লালমনিরহাটে লক্ষ্মী কান্ত রায় নামে জীবিত এক স্কুল শিক্ষককে মৃত দেখিয়ে বন্ধ হওয়া তার (এনআইডি) জাতীয় পরিচয় পত্র আবারও সচল করা হয়েছে।

৫ মার্চ শুক্রবার বেলা ১২টায় ভোটার আইডি কার্ড সচল হয়েছে এবং সে কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস এর টিকার জন্য নিবন্ধন করতে পেরেছে বলে নিশ্চিত করেন​​ স্কুল শিক্ষক​​ লক্ষ্মী কান্ত রায়।

লালমনিরহাট সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আজাদুল হেলাল​​ জানান, জীবিত স্কুল শিক্ষককে মৃত দেখিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র বন্ধ করা এবং ভোটার তালিকা থেকে নাম বাদ পড়ার​​ বিষয়টির তদন্ত​ চলমান রয়েছে। আরও তিন কার্যদিবস তদন্তের সময় বাড়ানো হয়েছে। তদন্ত করে উপযুক্ত আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও​​ জানান তিনি।​

জেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশের প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে ঘটনাটি তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়। তদন্ত কর্মকর্তা জড়িতদের সঙ্গে কথা বলে তদন্ত প্রতিবেদন তৈরি করবেন। পরে তা এনআইডি অনুবিভাগের মহাপরিচালকের কাছে পাঠানো হবে।

লক্ষ্ণী কান্ত রায় আদিতমারী উপজেলা বালাপুকুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও সদর উপজেলার মোগলহাট ইউনিয়নের কাকেয়াটেপা গ্রামের মৃত হিরম্ব চন্দ্র রায়ের ছেলে।

ভোটার তালিকায় নাম না থাকার কারণে তিনি গত সংসদ নির্বাচন থেকে শুরু করে স্থানীয় কোনো নির্বাচনেই ভোট দিতে পারেননি। শুধু তাই নয়, করোনা ভ্যাকসিন গ্রহণের জন্য অনলাইন রেজিস্ট্রেশনও করতে পারেননি স্কুলশিক্ষক লক্ষ্ণী কান্ত রায়। এছাড়াও এনআইডি কার্ড না থাকায় তিনি বিভিন্ন বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন।

উল্লেখ্য, জীবিত স্কুলশিক্ষক লক্ষ্মীকান্ত রায়কে নির্বাচন কমিশন ২০১৫ সালে মৃত দেখিয়ে তাঁর এনআইডি অকার্যকর করে দেয়। এ নিয়ে লক্ষ্মীকান্ত রায় বিভিন্ন ধরনের ভোগান্তির শিকার হন। এনআইডির এ সমস্যা সমাধানের জন্য গত ২২ ফেব্রুয়ারি তিনি লালমনিরহাট সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে তার জাতীয় পরিচয় পত্র সচল করতে একটি আবেদন করেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Lalmonir Kantho
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102